শুক্রবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ইং, বাংলা ১৪, ফাল্গুন ১৪২৭
  • ঢাকা টাইমস নিউজ ডেস্ক
  • ১৫৯৫৫৮৩৫৭৩

ঐতিহাসিক আয়া সোফিয়ায় জুমার নামাজে হাজারো মুসল্লি

ঐতিহাসিক আয়া সোফিয়ায় জুমার নামাজে হাজারো মুসল্লি

ঐতিহাসিক আয়া’সোফিয়ায় জুমার নামাজে হাজারো মুসল্লির উপস্থিতি লক্ষ করা গেছে।

জুমা’র নামাজ আদায়ের মধ্য দিয়ে প্রায় ৮৬ বছর পর আবারো মসজিদ হিসেবে ফিরছে আয়া সোফিয়া

করোনা সংক্রমণরোধে সামাজিক দূরত্ব মেনে মসজিদসহ এর আশপাশের এলাকায় অংশ নিয়েছেন সেখানকার মানুষজন। এর আগের দিন তুরস্কের ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় আয়া সোফিয়ায় নামাজ পরিচালনার জন্য ৩ জন ইমাম নিযুক্ত করেছেন। এছাড়াও আজান প্রদানের জন্য মুয়াজ্জিন হিসেবে নিয়োগ পেয়েছেন ৫ জন।

গত ১৬ জুলাই তুরস্কের ধর্ম বিষয়ক অধিদফতর মসজিদে রূপান্তরিত হওয়ার পরে আয়া সোফিয়া পরিচালনার জন্য সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে একটি সহযোগিতা প্রোটোকল স্বাক্ষর করে। প্রোটোকলের অধীনে সংস্কৃতি ও পর্যটন মন্ত্রণালয় পুনরুদ্ধার ও সংরক্ষণের কাজ তদারকি করবে। ধর্ম বিষয়ক অধিদফতর ধর্মীয় বিষয়টি তদারকি করবে। তাছাড়া মূল্যবান এ স্থাপনাটি পর্যটকদের জন্য বিনামূল্যে উন্মুক্ত থাকবে।

উল্লেখ্য, দেশি-বিদেশি পর্যটকদের জন্য তুরস্কের সর্বাধিক দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে আয়া সোফিয়া অন্যতম। ইস্তাম্বুল বিজয়ের আগ পর্যন্ত ৯১৬ বছর আয়া সোফিয়া গির্জা ছিল। ১৪৫৩ থেকে ১৯৩৪ সাল পর্যন্ত প্রায় ৫০০ বছর মসজিদ ছিল। ১০ জুলাই তুরস্কের আদালত ১৯৩৪ সালে আয়া সোফিয়াকে জাদুঘর বানানোর সিদ্ধান্ত বাতিল করে মসজিদে রূপান্তরিত করার রায় দেন। জাদুঘরে রূপ দেয়ার আগে ৫০০ বছর স্থাপনাটি মসজিদ ছিল। জাদুঘর থাকাকালে ১৯৮৫ সালে ইউনেস্কো আয়া সোফিয়াকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করে।

ট্যাগস:


এ জাতীয় আরো খবর
  • সর্বশেষ
  • পাঠক প্রিয়